মূল্যায়নটা পরে নয়, আগেই করুন

0 comment 78 views

মূল্য ব্যাপারটার সঙ্গে অর্থের খুব যোগ থাকে যদি বস্তু কিংবা সেটা লেনদেনের ক্ষেত্রে হয়। কিন্তু যদি হয় মানুষের ক্ষেত্রে? তাহলে?

আমি আসলে জানতে চাইছি, মানুষের কি মূল্য হয়? মানুষের মূল্য আপনি কিভাবে নির্ধারণ করবেন?

এর পরের প্রশ্নটি আরও জটিল, সে মূল্য আপনি কিভাবে পরিশোধ করবেন? এটা জানতে হলো আমাদেরকে মানুষ বড় হয় কিসে?

এর উত্তরটি সহজ বটে। দাঁড়িপাল্লার এই মাপে বাটখারাটা অর্থ বিত্ত নয়, বাটখারাটা হলো মানবিকতা, মহানুভবতা।

মানুষের দিকে আমার সহযোগিতার হাতটি আমি সবসময় বাড়িয়ে রাখি ঠিকই কিন্তু নিজেকে আমি মহানুভব মানুষ বলে দাবি করি না। কেননা আমি জানি যে সহযোগিতার কথাটি আমি উল্লেখ করলাম- সেটি এতই নগণ্য যে উল্লেখের যোগ্যতাও রাখে না। তবু কথা প্রসঙ্গে কথাটি চলেই এল বলে দুঃখিত।

কিন্তু আমি মানবিক মানুষ। মানবিক মানুষ যে এই দাবিটি আমি খুব অহংকার নিয়েই করতে চাই। কেননা একজন মানুষ মানবিক কিনা তার ওপর নির্ভর করে সে আসলেই মানুষ হতে পেরেছে কিনা।

মানবিকতা হলো মানুষের সমস্ত আচরণ। মানবিকতা মানুষের কর্মক্ষমতা, তার শিক্ষা, সামাজিকতা, বৈজ্ঞানিক মনস্কতা, অসাম্প্রদায়িকতা, অন্যদের সঙ্গে সম্পর্ক, শিল্পবোধ, সংস্কৃতিমনা আর যৌক্তিক ভাবে তার অবস্থানটি জানায়।ব্যক্তিগত ভাবে আমি আমার অবস্থানটি জানি। কিন্তু আমার এই জানাটিই শেষ কথা নয়। ওই যে অন্যদের সঙ্গে সম্পর্ক- ওই অন্যেরা আমার মানবিক দিক সম্পর্কে কি ভাবছে সেটি বেশি গুরুত্ব বহন করে আসলে। এবং একইভাবে আমার পরিচিত পরিমণ্ডলের যারা, তাদেরটি আমার ভাবনাতেই নির্ভর করে।

এই কারণে মূল্যায়ন খুব জরুরি। কাল যখন আমি বা আপনি থাকব না তখন আমাদের অবর্তমানে আপনি যতই শোক করুন, যতই বলতে থাকুন, “বড় ভালো লোক ছিল”- সে বলা আমার কিংবা আপনার মূল্যায়ন আমাদের কারোই কোনো কাজে লাগবে না।তাই মানুষটি আপনার-আমার মাঝে থাকতে থাকতে মূল্যায়ন করুন। তাহলে তিনি আরও মানবিক হতে উৎসাহিত হবেন। যদি মানবিকতার ঘাটতি থাকে তাহলে হয়ত ভুলটা বুঝতে পারবেন।

মনে রাখবেন, আমাদের অনেক অনেক মানবিক মানুষ দরকার।

Leave a Comment

You may also like

Copyright @2023 – All Right Reserved by Shah’s Writing